মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহ্

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ , ৭:৩৫ অপরাহ্ণ ; 236 Views

তরুণ তুর্কি: মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহ

তরুণ তুর্কি: মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহ 1

মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহর জন্ম ২৪ জুন ১৯৯৫ সালে রংপুর শহরের এরশাদ মোড়, কামার পাড়ায়। বাবা প্রফেসর মো. মোফাচ্ছের আলী একজন শিক্ষক, মা সালেহা বেগম, গৃহিণী। খালিদ এখন পড়ছেন রংপুর ডেন্টাল কলেজের তৃতীয় বর্ষে। ছেলেবেলা থেকে লেখালেখির অভ্যাস। প্রথম কবিতা প্রকাশ হয় ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ সালে দৈনিক যুগের আলো সাহিত্য পাতায় ‘বন্ধ জানালা’ শিরোনামে। নিজে তরুণ হওয়া সত্ত্বেও কাজ করছেন তরুণদের লেখালেখি নিয়ে। সম্পাদনা করছেন ‘তারুণ্যের পদাবলি’ নামে একটি ফেসবুক ভিত্তিক ম্যাগাজিন। এছাড়া সাহিত্যের কাগজ মৌচাক ও অনলাইন ম্যাগাজিন মুগ্ধতা ডট কমের তিনি সহকারী সম্পাদক। কাজ করছেন সাহিত্য ও সামাজিক বিভিন্ন সংগঠনে।

‘তরুণ তুর্কি’ তে আজ প্রকাশিত হচ্ছে মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহর পছন্দ-অপছন্দের বিষয়গুলো।

প্রিয় বই: দত্তা, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

প্রিয় লেখক: কবিতায় জীবনানন্দ দাশ, উপন্যাসে শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।

প্রিয় খাবার: দেশি আলুর ভর্তা, পোড়ানো বেগুনের ভর্তা সাথে গরম ভাত।

প্রিয় মানুষ: আম্মি

আদর্শ মানুষ: হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)

প্রিয় স্থান: টাউন হল চত্বর, রংপুর

প্রিয় মুহূর্ত: জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত প্রিয়, উপভোগ করি সুখ, দুঃখ আর ব্যর্থতাকে।

প্রিয় কবিতা: কবি আল মাহমুদের ‘কবিতা এমনই’

প্রিয় বাক্য/উক্তি:
আমি প্রেমিক হবার আগেই
হয়ে যাই ব্যর্থ প্রেমিক।

যেমন মানুষ হতে চাই: পরোপকারী, হাস্যজ্জল মানুষ।

যে বিষয়টি পীড়া দেয়: সম্পর্কের অব্যবহার

আগামীর পরিকল্পনা:

আমার জীবনটাই অপরিকল্পিতভাবে কেটে যাচ্ছে। জীবন থেকে কিছু চাইবার নেই। কারো কটু কথা, পরিবারের বোঝা হতে চাই না আর তাই জীবন বাঁচানোর জন্য সামান্য উপার্জন করাটাই পরিকল্পনা আপাতত।

নিজের লেখা বাছাইকৃত একটি কবিতা:

নিষিদ্ধ পাণ্ডুলিপি
মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহ্

এ শহরে বরং দুচারটি বেশ্যালয় বাড়ুক
কিছু সুপুরুষের আনাগোনায়,
মুখর হোক কিছু আঁধারের গল্প।

ধর্ষকদের ও একটা গতি হোক,
নিরীহ জননী,বোন,ভাবী কিংবা বান্ধুবী
নিরাপদে থাকুক হিংস্র জানোয়ার থেকে।

আচ্ছা বলতে পারো?
এই সব ধর্ষিতাকে
তার বাবাকে,তার মাকে
কি বলে সান্ত্বনা দিবো?

তাই বলি কি!
এ শহরে বরং দু’চারটা বেশ্যালয় বাড়ুক
তবু পত্রিকাগুলো যেন সাহস না পায়
টিভি খুললেই যেন শুনতে না হয়,
এক বছরের শিশু কিংবা
চার সন্তানের জননী ধর্ষণের শিকার।

তবুও যদি বিবেক জাগ্রত না হয়
সুপুরুষের পুরুষত্ব যদি দেখাতেই হয়
তবে আমাকে বেশ্যার দালাল বানিয়ে দিও।
আমি খদ্দেরের খোঁজে পেষ্টার ছাপাবো
লিফলেট নিয়ে বের হবো রাস্তায় রাস্তায়।

তবুও নষ্ট যেন না হয়
কোন জীবন,কারো যৌবন।

———————————

‘তরুণ তুর্কি’ বিভাগটি এখন থেকে প্রতি শনিবার প্রকাশিত হবে ইনশাআল্লাহ।