বিভাগীয় লেখক পরিষদের একাদশ বর্ষপূর্তি উদ্বোধন

মুগ্ধতা প্রতিবেদক

১ ডিসেম্বর, ২০২১ , ৬:৫৩ অপরাহ্ণ ; 242 Views



সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. শওকত আলী বলেছেন, সুস্থ জীবনধারার বিকাশে সাহিত্য-সংস্কৃতির ভূমিকা অনস্বীকার্য। আবার সুস্থ জীবনধারা নিশ্চিতের জন্য সেই সাহিত্যচর্চার ধারাও হতে হবে সুস্থ। বিভাগীয় লেখক পরিষদ, রংপুরের একাদশ প্রতিষ্ঠাবাষির্কী উপলক্ষে মাসব্যাপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করতে গিয়ে অনলাইনে যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি আরও বলেন বিভাগীয় লেখক পরিষদ রংপুর অঞ্চলের সাহিত্য-সংস্কৃতির প্রসারে অসমান্য ভূমিকা রাখছে।

রংপুরের বিভাগীয় সরকারি গণগ্রন্থার মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন মুক্তিযোদ্ধা আকবর হোসেন, শিক্ষাবিদ ও সাহিত্যিক প্রফেসর মোহাম্মদ শাহ আলম, কারমাইকেল কলেজের প্রাক্তন ভিপি মো. আলাউদ্দীন মিঞা, শিক্ষাবিদ ড. এ.আই.এম মুসা, শিক্ষাবিদ ও সংগঠক অধ্যক্ষ খন্দকার ফখরুল আনাম বেঞ্জু, লেখক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ডা. মফিজুল ইসলাম মান্টু, লেখক ও সংগঠক রানা মাসুদ,  রেজাউল করিম মুকুল, কবি ও সাংবাদিক মাহবুবুল ইসলাম, শিক্ষক ও সাহিত্যিক ড. নাসিমা আকতার, ছড়াকার এস.এম খলিল বাবু, লেখক আনওয়ারুল ইসলাম রাজু, সিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বপন চৌধুরী, বিভাগীয় লেখক পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মুহাম্মদ মকবুল হুসাইন সুমন, ছড়া সংসদ রংপুরের সভাপতি ও ছড়াকার সাঈদ সাহেদুল ইসলাম, সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি এসএম সাথী বেগম, রংপুর জেলা কমিটির সভাপতি এটিএম মোর্শেদ, জাতীয় কবিতা পরিষদ রংপুর বিভাগীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মনজিল মুরাদ লাভলু প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে এ বছর বীর মুক্তিযোদ্ধা সম্মাননাপ্রাপ্ত রামকৃষ্ণ সোমানী এবং গুণী সাহিত্যিক সম্মাননাপ্রাপ্ত প্রফেসর ড. মুহাম্মদ রেজাউল হকের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেওয়া হয়। এর আগে তাঁদের গলায় উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়। নিজেদের অনুভূতি জানাতে গিয়ে আবেগাক্রান্ত হয়ে পড়েন। পরে সেরা সংগঠক হিসেবে সম্মাননা গ্রহণ করেন সংগঠনের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক শরিফুল আলম অপু।
বিভাগীয় লেখক পরিষদ রংপুরের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কাজী মো. জুন্নুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক জাকির আহমদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাহিত্য সম্পাদক মজনুর রহমান।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক শামসুজ্জামান সোহাগ, গ্রন্থাগার সম্পাদক শ্রাবণ বাঙালি, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সেলিনা সাত্তার শেলি, আন্তর্জাতিক ও বহির্যোগাযোগ সম্পাদক নূর হোসেন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক আদিল ফকির, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউল আলম ফারুকী, স্বাস্থসেবা সম্পাদক ডা. ফেরদৌস রহমান পলাশ, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক দীপক সরকার তপু, সহ-তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ বশীর, সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক লায়লা শিরিনা, সোহানুর রহমান শাহীন, বিফুল চন্দ্র বর্মণ, এসএম কামরুজ্জামান বাদশা, আসহাদুজ্জামান মিলন, আতাউর রহমান তুহিন, কবি মিনার বসুনীয়া, মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহ, মনিরা পারভিন পপি, আহসান লাবিব, অঙ্কনা জাহান, জিএম নজু, ইভান, দয়িতা চৌধুরী সিমুসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা।

2 responses to “বিভাগীয় লেখক পরিষদের একাদশ বর্ষপূর্তি উদ্বোধন”

  1. আতাউর রহমান says:

    বিভাগীয় লেখক পরিষদের একাদশ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে অনেক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন রইলো। বাকী আয়োজন গুলো সফল হউক সেই শুভ কামনা রইল।

  2. রবীন জাকারিয়া says:

    শুভ কামনা

মন্তব্য করুন

%d bloggers like this: