বিশ্ব রক্তদাতা দিবস: রক্ত দিন জীবন বাঁচান

মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহ্

১৪ জুন, ২০২১ , ১০:৩১ অপরাহ্ণ ; 453 Views

বিশ্ব রক্তদাতা দিবস: রক্ত দিন জীবন বাঁচান 1

আজ ১৪ই জুন, বিশ্ব রক্তদাতা দিবস।স্বেচ্ছায় ও বিনামূল্যে রক্তদান করে যারা লাখ লাখ মানুষের প্রাণ বাঁচাচ্ছেন তাদেরসহ সাধারণ মানুষকে রক্তদানে উৎসাহিত করাই এ দিবসের উদ্দেশ্য।

১৯৯৫ সাল থেকে আন্তর্জাতিক রক্তদান দিবস পালন এবং ২০০০ সালে ‘নিরাপদ রক্ত’-এই থিম নিয়ে পালিত বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসের অভিজ্ঞতা নিয়ে ২০০৪ সালে প্রথম পালিত হয়েছিল বিশ্ব রক্তদান দিবস। ২০০৫ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য অধিবেশনের পর থেকে প্রতিবছর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও এ দিবস পালনের জন্য তাগিদ দিয়ে আসছে।

এছাড়া ১৪ জুন দিবসটি পালনের আরও একটি তাৎপর্য রয়েছে। এদিন জন্ম হয়েছিল বিজ্ঞানী কার্ল ল্যান্ডস্টিনারের। এই নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী আবিষ্কার করেছিলেন রক্তের গ্রুপ ‘এ, বি, ও,এবি’।

রক্ত দেওয়া নিয়ে অনেকের মনে ভীতি ও ভ্রান্ত ধারণা আছে। রক্ত দিলে শরীরের কোনো ক্ষতি হয় না। শরীর শুকিয়ে যায় না বা শক্তিও নিঃশেষ হয়ে যায় না। বরং রক্তদানের নানাবিধ উপকার আছে। রক্তদানের মাধ্যমে আপনি অন্যের জীবন বাঁচাতে ভূমিকা রাখতে পারেন। গবেষণা বলছে, নিয়মিত রক্তদানের ফলে কিছু ক্যানসারের ঝুঁকি কমে। রক্ত দেওয়ার ফলে অস্থিমজ্জার রক্তকণিকা উৎপাদন ব্যবস্থা আরও সক্রিয় হয় ও নতুন লোহিত রক্তকণিকা তৈরির হার বাড়ে। যাদের রক্তে আয়রন জমার প্রবণতা আছে, রক্তদান তাদের জন্য ভালো। রক্ত দিলে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে, কখনো রক্তচাপও নিয়ন্ত্রিত হয়। দেহে হেপাটাইটিস বি, সি, এইচআইভি, সিফিলিস, ম্যালেরিয়ার জীবাণু আছে কি না, রক্তদান উপলক্ষে অনেকেরই তা জানা হয়ে যায়।

❑ কারা রক্ত দিতে পারবেন

১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সী যেকোনো শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ ও সক্ষম ব্যক্তি রক্ত দিতে পারবেন।

যাদের ওজন ৫০ কেজি বা তার বেশি (কখনো সর্বনিম্ন ওজন ৪৫ কেজিও ধরা হয়)।

কোনো ব্যক্তি একবার রক্ত দেওয়ার ৪ মাস পর আবার রক্ত দিতে পারবেন।

❑ কারা রক্ত দেবেন না

● হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কম (পুরুষদের ন্যূনতম ১২ গ্রাম/ডেসিলিটার এবং নারীদের ন্যূনতম ১১ গ্রাম/ডেসিলিটার হতে হবে) থাকলে।

● রক্তচাপ ও শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিক না থাকলে রক্ত দেওয়া ওই মুহূর্তে উচিত নয়।

● শ্বাস–প্রশ্বাসজনিত রোগ, যেমন হাঁপানি বা অ্যাজমা।

● রক্তবাহিত রোগ যেমন, হেপাটাইটিস বি বা সি, জন্ডিস, এইডস, সিফিলিস, গনোরিয়া, ম্যালেরিয়া ইত্যাদি থাকলে রক্ত দেওয়া যাবে না। তা ছাড়া টাইফয়েড, ডায়াবেটিস, চর্মরোগ, বাতজ্বর, হৃদ্‌রোগ থাকলেও রক্ত দেওয়া উচিত নয়।

● নারীদের মধ্যে যাঁরা অন্তঃসত্ত¡া ও যাঁদের ঋতুস্রাব চলছে তাঁরা রক্ত দেবেন না, সন্তান জন্মদানের এক বছরের মধ্যেও না।

● যাঁরা কিছু ওষুধ সেবন করছেন, যেমন, কেমোথেরাপি, হরমোন থেরাপি, অ্যান্টিবায়োটিক ইত্যাদি তাঁরা সে সময় রক্ত দেবেন না।

● যাঁদের বিগত ৬ মাসের মধ্যে বড় কোনো দুর্ঘটনা বা অস্ত্রোপচার হয়েছে তাঁরা রক্ত দেবেন না।

❑ কে কাকে রক্ত দিতে পারবে?

রক্তের গ্রুপ মোট ৮ ধরণের: এবি পজিটিভ, এবি নেগেটিভ, এ পজিটিভ, এ নেগেটিভ, বি পজিটিভ, বি নেগেটিভ, এবং ও পজিটিভ, ও নেগেটিভ।

আসুন সকলে নিয়মিত রক্ত দান করি। আমাদের এক ব্যাগ রক্তের কারণে বেঁচে যেতে পারে অনেক মানুষের প্রাণ।

বিশ্ব রক্তদাতা দিবস: রক্ত দিন জীবন বাঁচান 2

যে যাকে রক্ত দিতে পারবেন

মুগ্ধতা ব্লাড ব্যাংক

রক্ত দানের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করে অনলাইন ম্যাগাজিন মুগ্ধতা ডট কম সংগঠিত করতে যাচ্ছে বিশেষ ব্লাড ব্যাংক। সাইটের আলাদা মেনুতে রক্তদাতাদের বিস্তারিত তথ্য থাকবে। রক্তদাতার সবশেষ রক্তদানের তারিখ উলে­খ থাকবে। যে কেউ প্রয়োজনমতো রক্তদাতার সাথে যোগাযোগ করতে পারবে। নিজের রক্তের গ্রুপ যুক্ত করতে পারবে।

আপনার নাম অন্তর্ভুক্ত করতে নিচের ফরম্যাট অনুসারে তথ্য দিন কমেন্ট বক্সে অথবা [email protected] এই মেইলে।

তথ্য পূরণ করুন:

নাম:
ঠিকানা:
ফোন:
রক্তের গ্রুপ:
সর্বশেষ রক্তদানের তারিখ:

আসুন আরেকটা ভালো কাজের জন্য কিছুটা সময় ব্যয় করি। রক্তের মাধ্যমে যুক্ত হোক সকল মানব-প্রাণ।

দুনিয়ার যে প্রান্তেই থাকুন, তথ্য দিয়ে রাখুন।

বিশ্ব রক্তদাতা দিবস: রক্ত দিন জীবন বাঁচান 3
Latest posts by মুহাম্মদ খালিদ সাইফুল্লাহ্ (see all)
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •