মুগ্ধতা.কম

৯ আগস্ট, ২০২০ , ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ ; 189 Views

শহরনামা

শহরনামা-কামাল আহসান

শহরনামা- ০১

এখানেও বাড়ে লতা;

হৃদয়ের মাপ নিয়ে মাঝ মাঠে হয় রসিকতা

শরীর গড়ার ভোর লুটে নেয় চেনা অসারতা।

 

আয়ুর যোগান খায়;

তলোয়ারে দিয়ে তাল বাতাসেরা নামে বিছনায়

সোহাগিনী কাঁদে একা ঘুম তার ডোবে মোহনায়।

 

নীরবতা ঘামে দূরে;

আলোর খবর দেয়া কালোমেঘ ঝরে বুক ফুঁড়ে

পাতার বাঁশিরা সব ভোলে সুর- ভুল ঠোঁট ঘুরে।

 

নগর নাচানো গীতে;

শানের দেয়াল ছিঁড়ে মহুয়ার বন কাঁপে শীতে

পাখির প্রথাও জানে দালালের স্বর বিপরীতে।

 

কালো শখ আছে শত;

শুয়োরের নখের মতোন রেখে যায় গাঢ় ক্ষত

হেঁটে যায় মানুষেরা- পদচ্ছাপ কুকুরের মতো।

 

বেঘোরের মোড় জানি; শহরের সোহাগেরা বলে মুখে, সুরধুনী চিনি

বেলা শেষে করে চন্ডিদাস সাজে সেও রজকিনী।

শহরনামা – ০২

শহুরে রঙেরা যতো

বাহুতে আদর করে হৃদয়ে রাখে না;

কাঁঠাল পাতার মতো

হলুদ শরীর নিয়ে বোঁটায় থাকে না।

 

শহুরে পুকুর কালো

ফল শেষে ফলোয়ার পেছনে ডাকে না;

জলের নিলাম ভালো

পিঠ চেনা পা’দুখানা আলোতে ঢাকে না।

 

শহুরে আলোরা ভিতু

আঁধারের হাতে গড়া বাতিরে ধরে না;

চলনে চালাক ঋতু

বিনয়ের রাজা সাজে চেতনা নড়ে না।

শহুরে শরম গত

রোয়াকপাখির চোখে নেকাব জোটে না;

লোকাল বাসের মতো

বিলে থাকা বক যেনো ক্ষুধাই মেটে না।

শহরনামা – ০৩

যুঝি ক্রোধ- খুঁজি শোধ;

শালিকের ডানা জুড়ে ভেসে থাকা বিকেলের রোদ

ঘাগরার ধুলো মুছে আনে রাত; জাগে শুভ স্রোত।

 

আঁধারেও হাসে কায়া;

কলমি লতার মতো চোখে ভাসে পুকুরের মায়া

শহুরে সাঁতার হাসে; পাশে বাড়ে বিজনের ছায়া।

 

ছায়া নিয়ে মজে ঘোরে;

যার ডাকে জাগে পথ- নিশিধোয়া শহরের ভোরে

দেহ তার নাচে রঙে; কথা নাচে তুফানের তোড়ে।

 

চেনা দুঃখে দোলে পাল;

শহুরে খালের দেহে আঁকা থাকে অচিনের কাল

আগুন জ্বালায় চোখে;

শোকে ভেজে নাগরিক হাল।

 

ভাঁজে ভাঁজে নামে রোদ;

ঘুমের ঘ্রাণের মতো জেগে থাকে চেনা প্রতিশোধ

চোখের গভীরে জাগে ভুল সাধ; জাগে কালো ক্রোধ।

 

শহুরে সরল শোক;

সড়কে পাথর কাঁদে; স্বর ভাঙে কালের স্মারক

কালোকে মিলিয়ে নিতে যায় দিন; জাগেনা জারক।