স্মরণ Archives - মুগ্ধতা.কম

মুগ্ধতা.কম

২ মে, ২০২২ , ৫:৫২ অপরাহ্ণ

বিপাশার অসমাপ্ত কাজ এগিয়ে নিতে হবে

রবীন্দ্রনাথের গান বা কবিতা যে হারে বাঙ্গালির মধ্যে চর্চা বা মূল্যায়ন হয়েছে বা হয় সেই হারে নজরুলের গান কবিতা হয়নি বা হয় না। সবজায়গায় তুলনামূলকভাবে নজরুল অবহেলিত। বাংলাদেশ এর ব্যতিক্রম নয়। বিশ্ব দরবারে রবীন্দ্রনাথকে আমরা যেভাবে লালন করছি, তুলে ধরছি নজরুল তার ধারের কাছেও নেই। কিন্তু বাংলা গান ও সাহিত্য সংস্কৃতির অঙ্গনে এই দুই কালপুরুষের অবদান অসামান্য। দুজনেই আমাদের সম্পদ। এঁরা দুজনেই আমাদের বাংলা সাহিত্য ও সংগীতকে সমৃদ্ধ করেছেন।

আমাদের গবেষণা ও চর্চায় রবীন্দ্রনাথ অনেক এগিয়ে। নজরুলকে আবেগে ধারণ করলেও প্রচার প্রসার ও মর্যাদার স্থানে প্রথম সারিতে নেই তিনি, এটা আমাদের দূর্ভাগ্য। বিশ্ব দরবারে নজরুলকে পৌঁছাতে আমাদের কার্পণ্য আছে। তাঁর সৃষ্টি বিভিন্ন ভাষাভাষিদের কাছে তেমনভাবে তুলে ধরতে পারিনি। এটা আমাদের চরম ব্যর্থতা। অথচ অল্প সময়ে ক্ষুধার্ত অসচ্ছল নজরুল চরম প্রতিকূলতায় যা সৃষ্টি করেছেন তা আর কারও পক্ষে সম্ভব কি না জানিনা। তিনি বিস্ময়কর এক প্রতিভা। তিনি সেরার সেরা, বিস্ময়ের বিস্ময়। তিনি সাম্যের, অসাম্প্রদায়িকতার, মানবতার, প্রেমের, ধর্মের, সকল বর্ণের, সংগ্রামের, প্রেরণার, নির্যাতিতের, আপোষহীন উন্নত শিরের কবি। তাঁর গানে যে বৈচিত্র্য আর সুর তালে বিভিন্নতা তা বাংলা কোনো গানেই নেই। যেমন তাঁর জীবন সংগ্রাম আর বৈচিত্র্যময় তেমনি তাঁর সকল সৃষ্টি অপ্রতিদ্বন্দ্বি। নজরুল আমাদের বাংলা শব্দ ভাণ্ডারকে চমৎকারভাবে সমৃদ্ধ করেছেন। তাঁর কবিতায় যে ছন্দ আর শব্দ প্রয়োগ, তার মুন্সিয়ানা পৃথিবীর কারও লেখায় নেই। তিনি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ কবি।

তিনি তাঁর গানে যে কথা সুর আর তালের সৃষ্টি করেছেন তার ধারের কাছেও যাওয়া অন্য কারও পক্ষে সম্ভব কি না জানিনা। ভারত বর্ষের স্বাধীনতার জন্য সরাসরি তাঁর অবদান আর কোনো কবি সাহিত্যিকের আছে কি না জানিনা। যে কোনো সংগ্রাম আর নিপিড়নের বিরুদ্ধে শক্তি সাহস প্রেরণা নজরুলের গান ও কবিতা। সেই নজরুল আমাদের ধমনীর শিরায় উপশিরায় থাকলেও তাঁকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে আশাব্যঞ্জক কিছু করতে পারিনি। যে ক’জন আমাদের দেশে নজরুল নিয়ে কাজ করছেন তাঁদের আমাদের স্যালুট। নজরুল একাডেমি ছাড়াও বিভিন্ন জেলা শহরে নজরুলের গান নিয়ে কাজ কিছুটা হচ্ছে। কিন্তু কবিতা খুবই নিগৃহীত।

এদেশের কবিতা আবৃত্তির ধারক বাহকরা রবীন্দ্রনাথের কবিতা যতটা আবৃত্তি করে সুখ পান, কেন জানিনা ততোটাই নজরুলের কবিতা আবৃত্তিতে অনীহা প্রকাশ করেন। সমকালীন কবিদের তথাকথিত আধুনিক কবিতার জয়জয়কার আর নজরুলের কবিতা সেকেলে ভাবের বলে আবৃত্তির কন্ঠে তা উচ্চারিত হয় না। রবীন্দ্রনাথ যেমন সর্বকালে আধুনিক কবি তেমনি নজরুলও সর্বকালের আধুনিক কবি। তাঁর কবিতায় যেমন প্রেম উথলি ওঠে বিরহে অশ্রু ঝরে তেমনি সংগ্রামে রক্তে আগুন লাগে। সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প যখন আকাশ বাতাস কলুষিত করে তখন নজরুলের গান কবিতা অসাম্প্রদায়িক চেতনায় আমাদের মহীয়ান করে। সাম্য, অধিকার, উঁচু নীচুর ব্যবধান  ভেঙ্গেচুড়ে চুরমার করে একাকার করার শক্তি প্রেরণা তার কবিতা গানে আমরা পেয়েছি। নজরুলের সব সৃষ্টি অনবদ্য অফুরন্ত, আকাশচুম্বী মর্যাদার।

সেই নজরুলের গানকে চারিদিকে ছড়িয়ে দেয়ার কাজ যে ক’জন করছিলেন তার মধ্যে বিপাশা গুহঠাকুরতা অন্যতম। কমল দাস গুপ্ত, কাননবালা দেবী, ফিরোজা বেগম, সোহরাব হোসেন, ফেরদৌসী বেগম, খালিদ হোসেন নীলুফার ইয়াসমিন প্রমুখের পড়ে বিপাশা গুহঠাকুরতা অন্যতম। নজরুলের হারিয়ে যাওয়া গানগুলো শুদ্ধ সুরে বিভিন্ন মাধ্যমে গেয়ে নজরুলের সৃষ্টিকে বাঁচিয়ে রাখতে চাইছিলেন বিপাশা গুহঠাকুরতা। তিনি নিরলসভাবে গেয়ে যাচ্ছিলেন তাঁর কালজয়ী গান। নজরুল চর্চায় ফাতেমাতুজ্জোহরা, নাশিদ কামাল, শহীদুল ইসলাম খাঁন, মিজানুল ইসলাম খাঁন, নীলিমা আক্তার সহ অনেকেই আমাদের ধন্য করেছেন। বিপাশা শুধু গেয়ে নয়, সাংগঠনিকভাবেও নজরুলের সৃষ্টিকে এগিয়ে নিতে চেয়েছেন। তিনি উপলব্ধি করেছেন এককভাবে বা মুষ্টিমেয় কয়েকজনের পক্ষে এই মহান কাজ করা সম্ভব নয়। তাই তিনি সংগঠিত শক্তির চাহিদা অনুভব করেছিলেন।  তিনি নজরুল প্রেমিদের সুসংগঠিত করতে নিরলস পরিশ্রম করে গেছেন।

বিপাশার অকাল প্রয়াণে আমরা কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়েছি। প্রচন্ড একটা আঘাত আমাদের বুকে হাহাকার তুলেছে। সদা হাস্যজ্বল, শিক্ষিত, মার্জিত, নিরহংকারি, শুদ্ধ চর্চার নজরুল ভক্ত এক নক্ষত্রের ঝরে যাওয়া মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে। আমাদের হৃদয়ে তুমি থাকবে। তোমার শুরু করা অসমাপ্ত কাজ সুচারুরূপে করার চেষ্টা আমরা করবো ইনশাআল্লাহ। তুমি শান্তিতে ঘুমাও প্রিয় বিপাশা।

ঈদ সংখ্যা - ২০২২
147 Views