রসরচনা

মুগ্ধতা.কম

১১ এপ্রিল, ২০২০ , ৫:৩৭ অপরাহ্ণ

জাম্বুর ফিরে আসা

জয় বাংলা একটা রোগের নাম। পড়েই এভাবে চোখ লাল করবেন না জনাব। আমি সাধারণ ছাপোষা লেখক। তবে এই যে চোখ লাল করলেন এটাই জয় বাংলা রোগ নামে পরিচিত ছিল ১৯৭১ সালে।

মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ইন্ডিয়ার শরণার্থী শিবিরগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে চোখ ওঠা রোগ, যাকে আমরা বলি কনজাংটিভাইটিস। তো সেই মহামারিতে আক্রান্ত হয় মুক্তিযোদ্ধা, রাজাকার, হানাদার পাকিস্তানীসহ সারা বাংলার মানুষ।

সবাই তখন এই কনজাংটিভাইটিসকে মজা করে জয় বাংলা রোগ বলতো। এখন এই করোনা মহামারিতে সব পুরুষদের দেখা যাচ্ছে নেড়ে হবার প্রবণতা। যা মহামারিতে পরিণত হয়েছে। আমার পরিচিত অনেকেই নেড়ে করে আমাকে প্রমাণস্বরূপ ছবি ম্যাসেন্জারে দিচ্ছে। একজন দাবি করেছে এটাও একধরণের ভাইরাসের প্রভাব। তো এই নেড়েদের একটা জুতসই নাম খুঁজছি। বীর বাঙালী নামটা কেমন?

জাম্বুর ফিরে আসা

করোনার দিনে এভাবে মাথা ন্যাড়া করার ট্রেন্ড চালু হয়েছে। ছবি-সংগৃহীত

নেড়ে বলতেই আমার চোখে ভেসে আসে জাম্বুর ছবি। বাংলা সিনেমার ভিলেন। ইয়া মোটা, কালো আর নেড়ে। যার প্রধান কাজ লুচ্চামি করা আর সিনেমার শেষে বেদম মাইর খাওয়া নায়কের কাছে। তো আমাদের বীর বাঙালী এখানে নেড়ে হলেও, ভিলেন না হয়ে নায়ক।

তারা শত প্রলোভন কে দূরে সরিয়ে ঘরে লক্ষি ছেলে হয়ে বসে আছে। যার দিনে তিনবার চায়ের দোকানে গিয়ে দেশ উদ্ধার না করলে চলতোই না। প্রেমিকার বাড়ির সামনে অকারণে হাঁটাহাঁটি, সিগারেট খেয়ে কাশাকাশি বাদ দিয়ে ঘরে বসে থাকা কম বীরত্বের কাজ না।

তিন বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের মাথা আর বাঙালীর মাথা সারাজীবণই গরম থাকে। তো নেড়ে করে গরম মাথা কিছুটা ঠান্ডা হচ্ছে,এটাও লাভ বৈ কি। তবে জনাব সাবধানতা হিসেবে বেলতলায় যাবেন না। গেলেও সাবধানে।জয় হোক বীর বাঙালীর।

 

ডা. ফেরদৌস রহমান পলাশ 
চিকিৎসক ও লেখক

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জাম্বুর ফিরে আসা